আন্দোলনের নামে উগ্রতা বা ধ্বংসাত্মক কাজ করতে দেয়া হবেনা-ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী।

রাজনীতি, 28 January 2024, 33 বার পড়া হয়েছে,

আন্দোলনের নামে উগ্রতা বা ধ্বংসাত্মক কাজ করতে দেয়া হবেনা-ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী।

নিউজ ডেস্ক:

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সংসদ সদস্য র,আ,ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বলেছেন, নির্বাচন বানচাল করার বহু চেষ্টা করেও তারা ব্যর্থ হয়েছে। তবে আন্দোলনের নামে কোন রকম উগ্রতা বা ধ্বংসাত্মক কাজ করতে দেয়া হবেনা।

যদি আন্দোলনের নামে জনগনের শান্তি বিঘিœত করে কোন সন্ত্রাস করা হয় তাহলে তা সহ্য করা হবে না। তিনি আজ শনিবার সন্ধ্যায় শহরের কাউতলী নিয়াজ মোহাম্মদ স্টেডিয়ামে গণসংবর্ধনা গ্রহনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, রমজানুল মোবারককে সামনে রেখে যেসব লোকেরা কালো ধান্ধায় আছেন, তাদেরকে আমরা সতর্ক করতে চাই, আমরা কোন রকমের মজুদদারীকে সহ্য করবো না। রমজানে যারা দ্রব্য মূল্য নিয়ে যেসকল বন্ধুরা খেলাধূলা করবেন তাদেরকে খেলাধূলা না করার অনুরোধ করবো। খেলাধূলা করলে কেউ রেহাই পাবেন না। আমি আজকে বলে দিয়েছি একজন মন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসেবে, কোন জরিমানার ব্যাপার স্যাপার নাই, সরাসরি কারাগারে পাঠানোর জন্য আমি অনুরোধ করেছি।

তিনি আরও বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিন সচেষ্ট আছেন আমরাও তার সাথে আছি। সকলে মিলে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাই।

তিনি আরও বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে একটি দেশ দিয়ে গিয়েছেন। তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলেছে।

তিনি আমাকে মন্ত্রী বানিয়েছেন। আমি যে প্রতিশ্রæতি দিয়েছি তার প্রতিটা আমি পালন করবো ইনশাল্লাহ। আগেও আমিও চাঁদাবাজ, ছিনতাইকারী, ভূমিদস্যু, মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ছিলাম আজও আছি। মাদক ব্যবসায়ীদের বলতে চাই, আপনাদের কারণে যুবসমাজ ধ্বংসের পথে যাচ্ছে, আমি তাদের ধ্বংসের পথে যেতে দিতে পারি না। তাই মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স।

জেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত সংবর্ধনায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র হেলাল উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনের সংসদ সদস্য ফয়জুর রহমান বাদল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনের সাংসদ সৈয়দ এ.কে. একরামুজ্জামান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া -২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের সাংসদ মঈন উদ্দিন মঈন, মন্ত্রীর সহধর্মিণী মাউশির সাবেক মহাপরিচালক প্রফেসর ফাহিমা খাতুন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর সভার মেয়র মিসেস নায়ার কবির, জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি মোঃ হেলাল উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম ভূঁইয়া প্রমুখ।

এদিকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতেই ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা অনুষ্ঠিত হয়। সংবর্ধনানুষ্ঠানশেষে ব্যান্ডদল নগর বাউলের জেমস সঙ্গীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে হাজারো দর্শককে মুগ্ধ করেন।

 

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com