অনুষ্ঠিত হলো গ্রামবাংলা হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যবাহী গুটিদাড়া খেলা।

খেলাধুলা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-সদর, সাহিত্য, 14 January 2024, 31 বার পড়া হয়েছে,

স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল গ্রামবাংলা হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যবাহী গুটিদাড়া খেলা। রবিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে সাহিত্য একাডেমির উদ্যোগে ডা. ফরিদুল হুদার স্মরণে শহরের শেরপুর মাঠে এই ঐতিহ্যবাহী গুটিদাড়া খেলার আয়োজন করা হয়। গ্রামবাংলা হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যবাহী গুটিদাড়া খেলা দেখতে দূরদূরান্ত থেকে হাজারো মানুষ জুরো হন।

গুটিদাড়া খেলায় লাল দল ও সবুজ দলে ১১ জন করে দুইটি দল অংশগ্রহণ করেন। খেলায় রেফারি ছিলেন কালা মিয়া ও হামিম। লাল দল টসে জিতে প্রথমে মাঠে নেমে ব্যাট করে নির্ধারিত সময়ে ১২ পয়েন্ট অর্জন করে। পরবর্তীতে সবুজ দল মাঠে নেমে নির্ধারিত সময়ের পাঁচ মিনিট পূর্বেই ১৩ পয়েন্ট অর্জন করে জয়ী হয়।

খেলাটি দেখতে আসা দর্শকরা জানান, গুটিদাড়া খেলা গ্রামবাংলা ঐতিহ্যবাহী একটি খেলা। এই খেলা জেলার প্রত্যেকটি গ্রামে গ্রামে আয়োজন করা হত। কালের পরিবর্তনে এই খেলাটি হারানো পথে। আজকে খেলাটি দেখে আমরা খুব আনন্দিত। তারা আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে এ খেলাটি যেন প্রতি বছর আয়োজন করেন সে দাবি জানান।

অনুষ্ঠানে সাহিত্য একাডেমির সভাপতি কবি জয়দুল হোসেনের সভাপতিত্বে অতিথি ছিলেন ডা. ফরিদুল হুদার সন্তান ডা. নাজমুল হুদা বিপ্লব,সাহিত্য একাডেমি পরিচালক ফারুক আহমেদ ভুইয়া, সংগঠনের সদস্য সাংবাদিক ইব্রাহিম খান সাদাত, আবৃত্তি প্রশিক্ষক সাংবাদিক সোহেল আহাদ প্রমুখ।

এসময় খেলাটি বাংলাদেশের আর কোথাও হয় না বলে দাবি করে কবি জয়দুল হোসেন বলেন, ডা. ফরিদুল হুদা জেলার বিভিন্ন গ্রামের আনাচে কানাচে ঘুরে আমাদের বাংলা হাজার বছরের ঐতিহ্যবাহী খেলাগুলো পুনরুদ্ধার করতেন। দাড়িয়াবান্ধা, হাডুডু, লাঠি খেলা,মোরগ লড়াই, গরুর লড়াই এবং এই গুটিদাড়া খেলা। কালের পরিবর্তনে এই খেলাগুলো আজ হারানো পথে। প্রশাসন এবং সরকার উদ্যোগী হয়ে খেলাটি সর্বত্র ছড়িয়ে দিলে যুব সমাজ সামাজিক অবক্ষয় থেকে মুক্তি পাবে বলে তিনি জানান।

পরে অতিথিরা বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com